করোন বিধি মেনেই পুজো

জেলা

রাজ্যে করোনা সংকটেও বিভিন্ন পুজো কমিটির উদ্যোগতাদের খুশি করতে ৫০ হাজার টাকা করে অনুদান দিয়েছেন রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। পুজোগুলি যাতে বন্ধ না হয় এই কথা ভেবেই এরুপ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। নদিয়া জেলার বিভিন্ন পুজোগুলির মধ্যে অন্যতম এবং সেরা পুজো হিসেবে গত কয়েক বছর ধরে স্টেটের শিরোপা ছিনিয়ে নিয়েছে রানাঘাট আথলেটিক দুর্গোৎসব পুজো কমিটি। করোনা মোকাবিলাকে মাথায় রেখে এবছর সমস্ত সরকারী গাইড লাইন মেনে হচ্ছে পুজো। প্রবেশদ্ধারে স্যানেটাইজ গেট তৈরী করেছেন উদ্যোগকর্তারা। প্রতিবছরই একটা না একটা নতুন চমক থাকে তাঁদের পুজো মন্ডপে, দেবী দুর্গা আসেন মা বুড়ো মা রুপে। সারাবছরই এখানকার ক্লাবের সদস্যরা সামাজিক কাজে যুক্ত থাকেন কোননা কোনো ভাবে, কখনও দুস্থ অসহায় মানুষদের বস্ত্র বিতরণ আবার কখোনো খাদ্যসামগ্রী প্রদান ইত্যাদি। ক্লাবের মুল কর্মকর্তা শিবিপ্রসাদ স্যানালের একান্ত প্রচেস্টায় মায়ের অপরুপ শোভা ও সেই সাথে মন্ডপের অভিনবত্ত ফুটিয়ে তুলেছেন।৭২ তম বর্ষে পদার্পন করল এবছরের তাদের দুর্গোৎসব। রাজস্থানের মার্বেল প্যালেসের অনুকরনে তাদের পুজো মডপের থিম। উদ্যোগতারা জানিয়েছে মন্ডপের প্রবেশে দর্শনার্থীদের ভিড় এড়াতে একসঙ্গে ২৫ জনের বেশী দর্শনার্থীদের পুজা মন্ডপে প্রবেশ করতে দেওয়া যাবে না। তাছাড়া স্বাস্থ্যবিধির সবকিছুকেই মান্যতা দিয়ে এই পুজো এক আলাদা অন্যমাত্রা পাবে বলে দাবি করছেন উদ্যোগতারা দর্শকদের কাছে। এমনকি যারা বাড়ি বসে এই পুজা উপভোগ করতে চাইছেন তারাও বাড়িতে বসে এই পুজো মডপ এবং মায়ের অপরুপ শোভা দর্শন উপভোগ করতে পারবেন সেই ব্যবস্থাও করেছেন এখানকার পুজো উদ্যোগতারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *