জমি অধিগ্রহনকে কেন্দ্র করে হাইকোর্টে বহু মানুষ

কলকাতা জেলা

জমি অধিগ্রহন হবার পর ৪৫ বছর কেটে গেলেও পুর্ণবাসন পেল না হলদিয়ার কয়েক হাজার বাসিন্দা। এই নিয়ে গত ৫ই জানুযারি কলকাতা হাইকোর্টে একটি মামলা দায়ের করেছেন হলদিয়ার অধিবাসীরা। মামলা দায়ের পর আবেদনকারী শম্পু চন্দ্র দাস এবং শম্ভু চরন পাত্র জানিয়েছেন, জমি অধিগ্রহনের সময় তারা জমি দিয়েছিলেন। জমি অধিগ্রহন আইন অনুসারে ১৯৭০-৭১ সালে হলদিয়া প্রোজেক্টের জন্য। সরকার ১৮ টি মৌজায় সমস্ত জমি তারা অধিগ্রহন করে। সরকারের পক্ষ থেকে পুর্ণবাসনের ও ক্ষতিপূরনের আশ্বাস দেওয়া হলেও কিছু মানুষ ছাড়া সবাই তা এখনও পাননি। হলদিয়া ডক কমপ্লেক্স এস্টেটের অফিসার পূর্ণবাসন পাওয়া ওই মানুষগুলির অনেককে উচ্ছেদের নোটিস দিয়েছেন। সব মিলিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে হওয়া এই মামলার আগামী ১৩ ই জানুয়ারী শুনানীর কথা আছে। তবে মামলাকরীদের আইনজীবি জানান, এই গৃহহারা মানুষগুলির পুর্ণবাসন। অভিযোগ আসছে, হলদিয়া ডক কমপ্লেক্স যেমন বন্দরের কাজ করেছে তেমনই উদ্বৃও জমি এখনও পরে রয়েছে। আবেদনকারীরা এই মামলার সুরাহা চান কলকাতা হাইকোর্টের পক্ষ থেকে। সাথেই প্রয়োজনে তারা সপ্রিম কোর্টেও যাবেন বলে জানান। কার্যত এই গৃহহীন মানুষগুলি কী আর ঠাই পারে না? পরে থাকা জমিতে কী সামান্ন্য ঠাই পাবে না? এই প্রশ্নই ঘুরপাক খাচ্ছে গোটা হলদিয়া জুড়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *