সরকারি কর্মীদের জন্য বড়ো ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর, কাজ হবে দুটি শিফটে

কলকাতা রাজ্য

সোমবার থেকেই খুলেছে সরকারি ও বেসরকারি অফিসগুলি। তবে এখনও স্বাভাবিক হয়নি গণ পরিবহণ ব্যাবস্থা। যার জেরে সকালে অফিস যেতে গিয়ে হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে কর্মীদের। আর তার মধ্যেই সামাজিক দূরত্বকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে শুরু হয়েছে ঝুঁকির যাত্রা। ফলে ক্রমশই বাড়ছে সংক্রমণের আশঙ্কা। এই পরিস্থিতিতে সরকারি কর্মীদের জন্য বড়ো ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর। এবার থেকে সরকারি অফিসগুলিকে কাজ হবে দুটি শিফটে।
সাধারণত সরকারি দফতরগুলিতে কাজ শুরু হয় ১০.৩০ থেকে, চলে ৫.৩০ পর্যন্ত। তবে এবার থেকে প্রথম শিফটের কাজ শুরু হবে ৯টা থেকে, চলবে ২.৩০ পর্যন্ত। দ্বিতীয় শিফট চলবে দুপুর ১২টা থেকে ৫টা পর্যন্ত। এদিন নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে এমনটাই জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এর ফলে একই সাথে অফিস যাওয়ার চাপ অনেকটাই কমবে।
এদিন মুখ্যমন্ত্রী সরকারি দফতরের পাশাপাশি বেসরকারি সংস্থার ক্ষেত্রেও একই ব্যাবস্থা করা যাবে কিনা তা বিবেচনা করতে বলেন। এদিন ওয়ার্ক ফ্রম হোমের ওপরও জোর দেওয়ার কথা জানান তিনি। উল্লেখ্য, এর আগে জ্বর, কাশির মতো করোনা সংক্রমণের উপসর্গ দেখা দিলে সেই সব কর্মীদের কাজে যোগ না দেওয়ার কথা জানানো হয় মঙ্গলবার। পাশাপাশি কনটেনমেন্ট জোনে থাকা কর্মীদের অফিস না এসে বাড়ি থেকেই কাজ করার কথাও জানানো হয়। তারপরই বুধবার মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণায় খানিক স্বস্তি পেয়েছে সরকারি কর্মীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *