চিনা মোবাইল ব্র্যান্ডগুলির ভবিষ্যৎ ঘিরে বাড়ছে আশঙ্কা

জেলা রাজ্য

লাদাখ সীমান্তে চিন-ভারত যুদ্ধ পরিস্থিতি ও চিনের আগ্রাসী নীতির প্রভাবে দু দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক তলানিতে। আর এই অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতিতে চিনা পণ্য বয়কটের ডাক উঠেছে দেশজুড়ে। এমতাবস্থায় বাজার ছেয়ে থাকা চিনা পণ্যের কোম্পানিগুলির ভারতীয় বাজারে প্রভাব হ্রাস পাওয়ার আশঙ্কা বাড়ছে। আর কলকাতা ছাড়িয়ে শহরতলিতে আছড়ে পড়েছে চিনা পণ্য বর্জনের ডাক। সাম্প্রতিক সময়ে চিনের ইলেক্ট্রনিক্স পণ্য ও মোবাইলের রমরমা ভারতের বাজার জুড়ে। মোবাইল যখন কার্যত মানুষের নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রীর তকমা পেয়েছে, তখন অধিকাংশ ভারতীয়দের হাতে হাতে ঘুরছে চাইনিস কোম্পানি গুলির স্মার্টফোন। ২০১৯ সালের শেষ চারমাসে ভারতের বাজারে মোবাইলের ঊনত্রিশ শতাংশ বিক্রির শেয়ার ছিল সাওমি তথা রেডমি ব্র্যান্ডের। ভিভো বা অপ্পো ফোনের বিক্রিও বেড়েছে হু হু করে। কম দামে অধিকতর ফিচার থাকায় মানুষ চীনের মোবাইল ব্র্যান্ড গুলির দিকে ঝুঁকলেও ভারত চিনের সম্পর্কের অবনতির সঙ্গে সঙ্গে আশঙ্কা ঘনিয়েছে চীনের মোবাইল ব্র্যান্ডগুলির ভবিষ্যৎ নিয়ে। মোবাইল ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত ব্যবসায়ীরা দেশীয় স্বার্থ ও দেশীয় সেন্টিমেন্টকে উল্লেখ করেই বলছেন রাতারাতি পড়তে পারে চীনের ব্র্যান্ডগুলির বিক্রি। বারাসাত ঘুরে সাধারণ মানুষ, ক্রেতা, বিক্রেতা, মোবাইল টেকনিশিয়ান প্রত্যেকের মতামতের প্রেক্ষিতে পরিষ্কার মোবাইলে চিনের মৌরসীপাট্টা এবার ভেঙে পড়ার সমূহ আশংকা। চিনা কোম্পানিগুলির কপালে চিন্তার ভাঁজ বাড়ুক, সাধারণ মানুষের অনেকেই চীনের পণ্য বর্জনের খোলাখুলি সমর্থক। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন চীনের আগ্রাসন ঘিরে জাতীয়তাবাদের উন্মেষে উল্লেখযোগ্য ভাবেই রয়েছে দেশীয় শিল্পের পুনরুজ্জীবন ঘটার শুভ সম্ভাবনা।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *