এম আর বাঙ্গুর হাসপাতাল

করোনা পজেটিভ ব্যাক্তি কে নেগেটিভ সার্টিফিকেট দিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হল, এম আর বাঙ্গুর এর ভুল রিপোর্টের জন্যই কি মারা গেলেন কলকাতার এই ব্যাক্তি?

কলকাতা জেলা রাজ্য সাংবাদিক বার্তা

ডেস্ক রিপোর্টার (কলকাতা) :  ভারতে করোনার থাবা ক্রমশই বেড়ে চলেছে দিনের পর দিন আক্রান্তের সংখ্যা টাও বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে, এর ই মধ্যে রাজ্যের অনেক গুলি জায়গাকে রেডজোন হিসেবে চিহ্নিত করেছে সরকার, চলছে বাড়তি সতর্কতা ।

কিন্তু রাজ্যে চিকিৎসা ব্যাবস্থা কি সঠিক ভাবে চলছে ? আর একবার সেই প্রশ্নের মুখে দারিয়ে স্বাস্থ্যদপ্তর ।

এম আর বাঙ্গুর হাসপাতাল এর ভুল রিপোর্টে মারা গেলেন ওম প্রকাশ গুপ্তা নামে এক ব্যাক্তি, অভিযোগ করেছেন তার ছেলে, ঘটনাটি ঘটেছে ২২ তারিখ, সেই ব্যাক্তিকে এম আর বাঙ্গুর হাসপাতাল এ ভরতি করা হয়, বলা হয় তিনি করোনা পজেটিভ এবং তার বাড়ির লোকদের হোম কোয়ারেনটিন এ থাকার নির্দেশ দেয় স্বাস্থ্য দপ্তর । ২৬ তারিখ এম আর বাঙ্গুর থেকে তাদের কাছে ফোন আসে বলা হয় আপনার পেশেন্টের রিপোর্ট করোনা নেগেটিভ তাকে বাড়ি নিয়ে যান, সেই মত রাজ গুপ্তা পেশেন্ট এর ছেলে তার বাবা কে বাড়ি নিয়ে আসে, ডিসচার্জ সার্টিফিকেট ও দিয়ে দেওয়া হয়।

২৭ তারিখ স্বাস্থ্যদপ্তর থেকে আবার তাদের কাছে একটি ফোন আসে যেখানে বলা হয় আপনার বাবা করোনা পজেটিভ আমরা গাড়ি পাঠাচ্ছি আপনার বাবা কে নিয়ে যেতে হবে সেই মত ওম প্রকাশ গুপ্তা কে আবার ও নিয়ে যাওয়া হয় এম আর বাঙ্গুর এ এবং পরের দিন সকাল এ ওই ব্যাক্তি মারা যান বলে দাবি এম আর বাঙ্গুর হাসপাতাল এর ।

আর এখানেই প্রশ্ন তুলছে তার ছেলে, কি ভাবে একজন করোনা পজেটিভ ব্যাক্তি কে নেগেটিভ বলা হল ? তার ছেলের দাবি তার বাবা সুস্থ ছিলেন বাড়ি থেকে হেঁটে গাড়ি তে গিয়েছিলেন যে ব্যাক্তি তিনি পরের দিন সকাল এ কি ভাবে মারা গেলেন ? তার ছেলে ফেসবুক এ একটি ভিডিও পোস্ট করেন যেখানে তার বাবা বলছেন তার যদি কিছু হয় তার দায়ভার স্বাস্থ্য দপ্তরের। তার ছেলের দাবি তার বাবা কে খুন করা হয়েছে , আর এ নিয়ে ই উঠছে প্রশ্ন ।

এত বড় ভুল কি ভাবে করল স্বাস্থ্য দপ্তর ? তাহলে কি রাজ্যে করোনা টেস্ট করার সঠিক প্রযুক্তি নাই ? যদি থাকে তাহলে করোনা পজেটিভ ব্যাক্তির রিপোর্ট নেগেটিভ কি করে হল ? হাসপাতাল এর কি কোন দায়িত্ব নেই ? এরকম ই কিছু প্রশ্ন উঠে আসছে সামনে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *